অন্ধ কে?

চক্ষু থেকেও অন্ধ কে?
-সত্যটা যে পায় না খুঁজে,
বিবেক রাখে বন্ধকে।

বুদ্ধি থেকেও হাবা কে?
-জন্মদাতা বাপ ভুলে যে
বাপ ডাকে পীর বাবাকে।

সবচে’ হত ভাগা কে?
-কুরান ফেলে ফেকায় মজে,
গোড়ায় রাখে আগাকে।

‘সব’ থেকেও শূন্য কে?
-মূল জ্ঞানে ভুল যে ঢুকিয়ে
হারায় সকল পুণ্যকে।
……………………………………………

ডেঙ্গু-বচন

নমরুদ বুঝেছিলো, কী যাতনা মশাতে!
নাকে ঢুকে ফেলেছিলো করুণ এক দশাতে।

তারপর এই দেশে গত দুই দশকে
উৎপাত শুরু করে ‘এডিস’ এই মশকে।

ভয়াবহ রূপ নিলো দু’ হাজার ঊনিশে
দ্রুত রোগী মারা যায়, মহা বড় খুনী সে।

মেয়রেরা বলে দেন, ‘এটা মহামারী না
আমরা তো ঘরে-ঘরে ধোঁয়া দিতে পারি না।’

রথি-মহারথি যান স্বদেশের বাইরে
আমরা এ জনতারা কোথায় বা যাই রে?

অবশেষে অ্যাকশন, প্রস্তুত কামানও!
ঝাড়ু হাতে ‘তারকা’কে যায় না যে থামানো।

দেখি শুধু, কাজ নয়, বিজি গলাবাজিতে
তারা খোঁজে, এটা এলো কার কারসাজিতে?

অবশেষে আদালত বলে কড়া আদেশে
সহনীয় নয় এটা, শুরু হলো যা দেশে।

তবু শুধু বাণী শুনি দিন-রাত, সন্ধ্যায়
মশা নাকি পরিণত হয়ে যাবে বন্ধায়!

তারা শুধু কথা বলে, নাই কাজ, চেষ্টায়
যথারীতি ছোটাছুটি প্রতিবেশী দেশটায়।

ভেজালও যে খাঁটি হয় উহাদের সনদে!
বিনিময়ে তারা বলে, ‘দেহ দিলি, মনও দে।’
……………………………………………

ইতিহাসের পাতায় পিঁয়াজ

দাম বেড়ে আজ ইতিহাসের
পাতায় উঠলো পিঁয়াজ
গরম মশলা লজ্জিত হয়,
শর্মে মরে ঘি আজ।

এই পিঁয়াজের বিকল্প আর
আছে বলুন কী আজ?
সেই প্রচারে নামেননি তো
পপি কিংবা রিয়াজ!

তবু পিঁয়াজ দরকারি
পিঁয়াজ ছাড়া হয় না মজা
আলু ভর্তা, তরকারি।
যতোই পিঁয়াজ পরিহারের
তাগিদ আসুক সরকারি।
……………………………………………

বৃষ্টি সকালে

আঁধার-কালো, মেঘ-বৃষ্টি
আজকে এমন সকালে!
তুমিও কি আমার মতোন
ভালোবাসায় কঁকালে?
……………………………………………

আমি শ্রমিক

আমি মধ্যবিত্ত শ্রমিক
সীমাবদ্ধ মাইনা
বোনাস-ক্রিমেন্ট পাই না
কোরমা-পোলাও খাই না
সাহায্য, তাও চাই না।
আমি মধ্যবিত্ত শ্রমিক
আমার নেই নাম্বার, ক্রমিক।
ভিক্ষার গান গাই না
সব দুয়ারেও যাই না
কেউ তো মামা-ভাই না
জন্মদাতাও দায়ী না
আমি মধ্যবিত্ত শ্রমিক
আমার নেই নাম্বার, ক্রমিক।
……………………………………………

বাবা

বাবার কাছেই অক্ষর জ্ঞান,
লিখতে, পড়তে শেখা;
তাঁর কাছে কতো ঋণী আছি, সেটা
সম্ভবই নয় লেখা।
বাবার কাছেই হাঁটা-চলা করা,
দুনিয়া দেখাটা শুরু
তিনিই প্রথম শিক্ষক আর
তিনিই আমার গুরু।
বাবার কাছেই যতো আব্দার,
জীবনের শত দাবী-
সব মেনে তিনি জীবন-নদীতে
খেয়েছেন শুধু খাবি।
বাবার কাছেই পরম মমতা,
শাসন-আশ্রয় পাই
‘বড়’ হয়ে গেছি, ভাব নিয়ে তবু
বাবাকেই ভুলে যাই।

বাবার হৃদয়ে অনেক কষ্ট,
অনেক বেদনা জমা
তারপরও জানি পুত্রকে তিনি
করবেন ঠিকই ক্ষমা।
……………………………………………

হায় ক্ষমতা

লোকাল ভোটে টাঙ্গাইলে
ক্ষমতার নাম ভাঙ্গাইলে!

ব্যালট নিতে ‘ঘাটাইলে’
সন্ত্রাসী ক্যান পাঠাইলে?

ভুল পথে পাও বাড়াইলে
জীবনটাকেই হারাইলে!