আফসার নিজাম Afsar Nizam ১৯৭৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি ঢাকা জেলার মিরপুর থানার, বর্তমানের পল্লবী থানার ৯ নাম্বার সেকশনের টেকের বাড়িতে জন্ম গ্রহণ করেন। মিরপুর সেনানীবাস প্রাইমার স্কুল থেকে লেখা পড়া শুরু। এর পর এম ডি সি মডেল ইনস্টিটিউট থেকে ১৯৯৪ সালে এস এস সি পাশ করেন। এইচ এস সি পড়েন তেজগাঁও কলেজ থেকে এবং ইসলামী স্টাডিজ-এ অনার্স মাস্টার্স করেন।

আফসার নিজাম এর পিতা মোহাম্মদ আফসার উদ্দিন মোল্লা ও মাতা ফজিলাতুন নেছা। সে পাঁচ বোন এক ভাই এবং বংশেরও একমাত্র পুত্র সন্তান। তার সার্টিফিকেট নাম মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন মোল্লা এবং ডাক নাম রিপন। তার পিতা টেকের বাড়িস্থ গাঁওসুল আজম জামে মসজিদ কমপ্লেক্স প্রতিষ্ঠাতা পাঁচ জনের মধ্যে একজন।

আফসার নিজাম বিয়ে করেন ২০০৯ সালে। তার স্ত্রি রেহনুবা নিজাম ইভা বিউটিশিয়ান, মেয়ে হাইফা তাননুর ৫ম শ্রেণিতে ও ছেলে মিখাইল জাবির ৩য় শ্রেণিতে পড়ে।

আফসার নিজাম কর্মজীবন শুরু করে ব্যাবসা দিয়ে। সৃজনশীলতায় সময় দেয়া হয় না বলে ব্যবসা ছেড়ে সংবাদিকতা পেশা বেছে নেন। সাংবাদিকতার শুরু হয় দৈনিক প্রথম আলোর নকশায় কাজ করার মধ্য দিয়ে। ইসলামী সংস্কৃতির বিকাশের কাজে সহযোগিতা করার জন্য কবি মতিউর রহমান মল্লিক তাকে বাংলাদেশ সংস্কৃতিকেন্দ্রে (প্রত্যাশা প্রাঙ্গণ) নিয়ে আসেন। প্রত্যাশা প্রাঙ্গণ বন্ধ হওয়ার পর্যন্ত তিনি ওখানেই কাজ করেন। প্রত্যাশা প্রাঙ্গণ বন্ধ হওয়ার পর তিনি ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপালে রিসিপসনিস্ট হিশেবে যোগদান করেন। বর্তমানে তিনি ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশন এর জনসংযোগ বিভাগের ইনচার্জ হিশেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

আফসার নিজাম তার সাংস্কৃতিক জীবন শুরু করে উচ্চাণ শিল্পী গোষ্ঠীর কণ্ঠশিল্পী হিশেবে। তার কণ্ঠ এতোটা অমধুর যে শিল্পীগোষ্ঠীর পরিচালক তাকে গান গাইতে বারণ করেন। সেই দুঃখে নিজাম বিপরীত উচ্চারণ সাহিত্য সংস্কৃতি সংসদ এ যান। সেখানে তিনি গল্প লেখা দিয়ে লেখা লেখি শুরু করেন। যদিও তিনি ১৯৮৮ সালে প্রথম কবিতা লিখেন। তার প্রথম গল্প প্রকাশ হয় সাপ্তাহিক সোনার বাংলা পত্রিকায়। কবি গোলাম মোহাম্মদ তার পানসি গল্পটি প্রকাশ করে। পরবর্তীতে সেই গল্পটি মেঘনা নদীর জলদস্যু নামে বই আকারে প্রকাশ হয়।

আফসার নিজাম আজীবন সংস্কৃতির মানুষ। সাংগঠনিক দিক দিয়ে সে সব সময়ই ছিলো অগ্রগামী। কবি মতিউর রহমান মল্লিক, গোলাম মোহাম্মদ, নাঈম মাহমুদ এর হাত ধরেই সাংগঠনিক উৎকর্ষ সাধন করেন। তিনি বিপরীত উচ্চারণের পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন, বাংলাদেশ গণমাধ্যম গবেষণা কেন্দ্র এর প্রেসিডেন্ট, অগ্নীবিণা সাহিত্য সংগঠন এর সাংগঠনিক সম্পাদক, উৎসঙ্গ সৃজন চিন্তন এর সহকারী পরিচালক, প্রত্যাশা প্রাঙ্গণ এর সভাপতি, পল্লবী প্রেসক্লাব এর সহসভাপতি। টেকের বাড়ি যুব সংগঠন এর সেক্রেটারি, মসজিদ এ গাউছুল আজম কমপ্লেক্স এর দফতর সম্পাদক এর দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি শোভন ছড়াপত্র ‘নিব’; সাহিত্য পত্রিকা ‘বাঙলা’; অনলাইন ম্যাগাজিন ‘সাময়িকী’ ও মোলাকাত এর সম্পাদক; ফিচার এডিটর ‘বিডি বুলেটিন ডট কম; সহকারী সম্পাদক ‘গণমাধ্যম গবেণাপত্র’ ও ‘প্রত্যাশা’; সাহিত্য সম্পাদক ‘দৈনিক দেশ জগৎ’।

আফসার নিজাম এর প্রকাশিত কবিতার বই ‘তিনপুরুষ এবঙ পুত্রপ্রজন্ম’ ২০১৪, ছড়ার বই ‘মিষ্টি আলোর বিষ্টি’ ২০১৬, ‘নীল পাখির উড়াল’ ২০২১, কিশোর উপন্যাস ‘মেঘনা নদীর জলদস্যু’ ২০১৭। সম্পাদনা গ্রন্থ ‘মতিউর রহমান মল্লিক নির্বাচিত রচনা’ ২০১৮, ‘চিকিৎসা বিষয়ক হাদিস’ ২০২১।

প্রকাশিতব্য গ্রন্থ, কবিতা ‘অলৈকিক জংশন’, ‘যাত্রাবিরতী’, সাক্ষাৎকার গ্রন্থ ‘মোলকাত’, ছড়া গ্রন্থ ‘বিষ্টি আমার বোন’, ‘এক তিতিলকা মা বোলারা’, ‘জোনাক জোনাক আলো’, ‘রাজার রাজা’, ‘সাতপুতুলের মা’। গল্প গ্রন্থ ‘কাঁচা পয়সার স্বচ্ছলতা’।