আমার দেশ

এইতো আমার দেশ
সোনার বাংলাদেশ
নেই যে রুপের শেষ

এইতো আমার মাটি
সোনার চেয়েও খাঁটি
মুক্তি সেনার ঘাটি

এইতো আমার নদী
বইছে নিরবধি
দেখতে তুমি যদি

এইতো আমার বন
সুন্দর এক ভূবন
জুড়াবে তোমার মন

এইতো আমার জমি
ফসল ভরা ভূমি
দেখতে এসো তুমি
…………………………………………..

জীবনের প্রয়োজন

প্রতিদিন ভোর বেলা সূর্যটা ওঠে
পাখপাখালির ঠোঁটে গুঞ্জন ফোটে
আলো তাপ দিয়ে সে পৃথিবীটা গড়ে
ঠিকমতো আসে যায় নিয়ম করে

বাতাসের কাজ তো রাত দিন চলে
প্রাণীকূল বেঁচে থাকে বাতাসের বলে
ক্লান্তিটা মুছে দেয় শীতল বায়ু
বায়ুর মাঝেই আছে সবার আয়ু

পৃথিবীর বুকে আছে পানির ধারা
কোন কিছু বাঁচবেনা সেই পানি ছাড়া
পানি ছাড়া হয়ে যায় জীবন অচল
পানি পেলে হয়ে ওঠে পৃথিবী সচল

এইসব প্রয়োজন মেটান যিনি
আমাদের জীবনটা বাঁচান তিনি
তাঁর হাতে আছে ভাই জীবন মরণ
সেই কথা প্রতিদিন রাখবে স্মরণ
…………………………………………..

চিরদিন থাকে না

এখানে কেউ চিরদিন থাকেনা
শুধু থেকে যায় ইতিহাস
শাসক-শোষক চিরদিন বাঁচেনা
এটাতো নিয়তির পরিহাস

ওমর মুখতার ফাঁসিতে ঝুলিয়ে
মুসোলিনি বাঁচেনি চিরদিন
মানুষের বুকে পরশ বুলিয়ে
ইতিহাস রয়েছে অমলিন

শাহের হেরেম থাকেনি জমা
সাক্ষী থেকেছে তাহ্ রীর
ইতিহাস তাকে করেনি ক্ষমা
বিজয় এনেছে খোমিনীর

এপ্রিল ফুলে পুড়িয়েছে ফুল
খোদার শত্রু রডারিক
গ্রানাডার আজ ভেঙেছে ভুল
আবার আসবে তারিক
…………………………………………..

রহম করো

রহম করো হে দয়াবান
মাফ করে দাও আমাদের
গাইবো মোরা তোমারি গান
তোমার পথেই আসবো ফের

সরল পথে বাঁধন ছাড়া
চলতে চাই যে সেই পথে
তোমার রহম পেল যারা
চালাও মোদের সেই পথে

গজব এলো ভুবন ব্যাপী
আঁধার দেখি চোখ মেলে
আমরা হলাম পাপি তাপি
তোমার রহম দাও ঢেলে

তুমি ছাড়া নেইকো মালিক
তুমিই সবার পরিচালক
সবকিছুর মহান খালিক
তুমিই সবার প্রতিপালক

আজাব গজব নাও উঠিয়ে
রহম করো এই পাপীদের
তোমার দয়া দাও পাঠিয়ে
কবুল করো এই আমাদের
…………………………………………..

কর্মফল

মুসিবত মহামারী , গিয়েছে তো সীমা ছাড়ি
এ যে কর্মের ফল আমাদের
আমরা তো গুনাগার , পাপ করি একাধার
এ বিপদ কামাই তো মােদের

চারিদিকে যে শ্বাপদ , বাড়ি গাড়ি সম্পদ
এই সবই এনেছি বিপদ
টাকা কড়ি কাড়াকাড়ি , ভাই ভাই মারামারি
আমাদের হয়েছে আপদ

রাত নেই দিন নেই , ছুটে চলি আঁধারেই
আলোকিত সোজা পথ ছেড়ে
এই সব কারনেই , আলোকের দিশা নেই
বিপদ মহামারী আসছে তেড়ে
…………………………………………..

ভাবনার সময়

সময় যে নাই কেমনে দাঁড়াই
শুনতে তোমার কথা

দিন কি রাতে কাজের সাথে
ঘামাই আমার মাথা

এত কাজের মাঝেও অভাব
ছাড়ছে না কো পিছু

সময় যদি পাই কখনো
বলবো তোমায় কিছু

সারা জীবন এমনি করে
দিন করেছো পার

এখনতো ভাই সময় আছে
খোলো জ্ঞানের দ্বার

সময় দিলেন মহান প্রভু
ভাবতে আরেকবার
…………………………………………..

মৃত্যু

মৃত্যু আমায় করছে তাড়া
জীবন বলে একটু দাঁড়া

কাজগুলো সব রইল পড়ে
কেমনে আমি যাবো মরে

বাড়ি গাড়ি টাকা কড়ি
হিসেব গুলো কেমনে করি

আপন জনের আদর মায়া
কোথায় পাব স্নেহের ছায়া

সোনার পালন্ক রঙিন বাতি
কেমনে সইবো আঁধার মাটি

সব ছাড়িয়ে সব হারিয়ে
কোথায় নিচ্ছ পা বাড়িয়ে

দিনগুলো সব চলেই গেল
মরণ বুঝি এসেই গেল