বোবা অনুভূতি

আমার বোবা অনুভূতি গুলো
ডুবে যেতে যেতে একদিন ভাষা খুঁজে পায়,
ভাষাহীন রোদ্দুরে দাঁড়িয়ে থাকতে থাকতে-
অতল জলে স্মৃতির ভেলায় ভেসে শব্দের উঠোনে যায়।
কথার শাড়ি পড়ে অতঃপর, কবিতার মতন সামনে দাঁড়ায়।
…………………………………………..

শ্যাওলা

আমার বুকের দেয়ালে
শ্যাওলা জমে আছে,
অথচ আমি কখনো সীমা রেখা চাইনি;
চাইনি কোন সীমানায় কাটা তারের বেড়া।
হে বন্ধু, দূর থেকে কুশল জানাও
দেয়ালে শ্যাওলা জমে জমে পিচ্ছল হয়ে আছি,
কাছে এলে পরে যাওয়ার ভয় মনে আসে।
…………………………………………..

গন্তব্য

বিচলিত রাত ডেকে যায়
সাঁকো হীন নদীর তীরে,
নিহত দিনের শোকের ঘোরে কাটে রাত্রির ছায়া।
আলো এসে পড়ে পত্র পল্লবে,
দিনমান চেয়ে থাকি –
একটি সহজ গন্তব্যে।
…………………………………………..

গুপ্ত সত্ত্বা

কারো চোখে নাচে আগুনের লেলিহান শিখা,
ভিতরে লুকিয়ে থাকে হুংকার;
সুযোগ সন্ধানী হয়ে ওঠে মাংসাশী চিরকাল।
অথচ, দিনের আলো শীতল চোখে ঘুরে ঘুরে যায়।
…………………………………………..

জোনাকির গান

নিভে গেলেও প্রদীপ বুকের কাছে জেগে আছে চাঁদ,
চেয়ে দেখ আলোতে জড়িয়ে আছে প্রাণ-
অন্ধকারের নগ্নতা ভুলে জোনাকিরা গাইছে গান।
…………………………………………..

এক টুকরো আলো চাই

আমি অন্ধকারে পথ চলতে আলো চাই,
ততটুকু হলে চলবে-
যাতে আধাঁর ঘুচে যায়।
পোঁড়া চোখ গিলে খাচ্ছে ছাই,
ভিতরের উত্তাপ আগুন নিভে গেছে;
চলার পথ আকাঁবাঁকা পাহাড়ি টিলার মত হয়ে আছে।
ঝরা পাতায় বিমূর্ষ সন্ধ্যা নামে
কৃত্রিম আলোয় ডুবে যায় রাত,
ভোরের সূর্য্য আমি-
মাটির দ্বীপে এক টুকরা আলো চাই।
…………………………………………..

অভিজ্ঞতা

দুরন্ত ঘোড়ার মতো ছুটে ছুটে
প্রতারণার জালে ফেঁসে গেছি,
একেবারে দেখে শুনে ফাঁদে পড়েছি-
বিশ্বাসে ভরা আবেগের বাগানে।
ফুল না হয়ে কলিতে ঝরেছি,
অন্ধের দেশে পায়ে হাত রেখে
কিনেছি অভিশাপ।

এসব অভিজ্ঞতা আমি কোথাও বিক্রি করতে চাই না,
যত্ন করে তাই পরিত্যক্ত ডাস্টবিনে ফেলে এসেছি।
…………………………………………..

ঝরা পাতার বৃক্ষ

ডুব দিয়ে ওঠে দেখি বদলে গেছে
চেনা প্রকৃতির রং,
আড়ালে থাকা বৃক্ষের পাতা ঝরে গেছে জলশূন্য বেদনায়।
অনেককাল পেরিয়ে মৃতের মতন বেঁচে থাকা গাছটির মগডালে নিশ্চুপ হয়ে ঝুলে রয় একটি ধূসর কাক;
অথচ, প্রতিদিন ভোর হলেই কা কা শব্দে মুখরিত হতো চারপাশে
সবুজ পত্র-পল্লবের সতেজ বৃক্ষ হতে।
…………………………………………..

নবীন পথিক

পেছনে পা ফেলো না নবীন পথিক,
চৌরাস্তায় আড় চোখের দৃষ্টিদেখে হইওনা ভীত-
নতুন পথের শঙ্কায়।
বুকের ভিতর জমা বিষন্নতার দানা
ঝেড়ে ফেলতে শিখো,
সূর্যকে টানতে জানো বুকের কাছে।
লোকদের জং ধরা কথার অস্ত্রতে দাও শান,
কেটে ফেলো মিছে মায়ায় জড়িয়ে ধরা রশি।
…………………………………………..

দহন

কিছু কান্নায় ভিজে না চোখ,
নৈঃশব্দ্যে সুরের ঢেউ তুলে- ভিতরে ভিতরে পোড়ে মন;
গোপনের অসুখ