তাহমিনা কোরাইশী Tahmina Quraishi ঢাকার শান্তিনগরে ১৪ নভেম্বর ১৯৫৪ সালে তার জন্ম। পিতা লুৎফর রহমান খান ও মাতা-সমাজসেবী নূরজাহান খান। পৈতৃনিবাস পাবনা জেলায়। তিনি সিদ্ধেশ্বরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৬৯ সালে মাধ্যমিক (মানবিক) ও বদরুন্নেসা মহিলা কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করেন (১৯৭২)।এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে ১৯৭৬ সালে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রী লাভ করেন।

স্বামী মুক্তিযোদ্ধা ওমর কোরাইশী। তিনি তিন পুত্রের জননী: তানভীর কোরাইশী (ডাইরেক্টর সিবো ইন্টারন্যাশনাল লিঃ), তানিম কোরাইশী (প্রাইভেট কোম্পানিতে হেড অব দা ডিপার্টমেন্ট), তাওসীফ কোরাইশী (ইঞ্জিনিয়ার, কানাডায় কর্মরত)।

তিনি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস – এ কমার্শিয়াল কর্মকর্তা হিসাবে দীর্ঘ সাতাশ বছর চাকরি করে স্বেচ্ছায় অবসর গ্রহণ করেন।

তাহমিনা কোরাইশী আশির দশক থেকে লেখালেখি করছেন। ষাট দশকের শেষ দিক থেকে শিশুতোষ লেখালেখিতে হাতেখড়ি। প্রথম লেখা প্রকাশিত ১৯৬৭। কবিতা, গল্প, ছড়া, উপন্যাস, শিশুসাহিত্য মিলিয়ে তাঁর প্রকাশতি গ্রন্থ সংখ্যা ২৭। প্রচারিত টেলিফিল্ম: অন্তহীন ভালোবাসা (মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক) প্রচারিত হয়েছে চ্যানেল আইতে।

প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ : তখন এখন (২০০৩), খোলা চিঠি (২০০৬); দিনের পায়ে বেঁধেছি নূপুর (২০১০ কলকাতা), জলেই জ্বেলেছি (২০১১) আগুন, খোলা চিঠি (২০০৬), ফিরে কি আসা যায় (২০০৮), হঠাৎ তোমাকে দেখা (২০০৪), নির্বাচিত কবিতা (২০১২) , তাহমিনা কোরাইশীর ১০০ কবিতা (২০১৮)।

গল্প গ্রন্থ : অমানিশার আগুন (২০০৭), হলদে পাতার গুঞ্জন (২০০৩), কুয়াশার দেওয়ালে যে সূর্য, চেনা মুখ অচেনা আলোয় (২০১১), অহল্যা যামিনী (২০১৪), আয়না (২০১৯) ।

উপন্যাস: যে জলে চন্দন ঘ্রাণ (২০১০)

শিশুতোষ ছড়ার বই : ছড়ার ঝুড়ি (২০০৪), মেঘের ঘুড়ি (২০০৮), হৈহুল্লোড় (২০০৬), ছড়া আমার খেলার সাথী (২০০৬), টাপুর টুপুর মিষ্টি দুপুর (২০০৬), ছড়া যত মজা তত (২০০৩), রঙধনু প্রজাপতি (২০১৩), ছড়ার বনে হারিয়ে যাবো (২০০৪) ।

কিশোর গল্প : বামন মামা (২০০৫), পল্টুর কাঁঠাল চুরি (২০০৮), ফুলপরীদের দেশে (২০১৬) বাংলাদশ শিশু একাডেমী), বত্রিশ নম্বর বাড়ি ও মুক্তিযুদ্ধ (২০২০)।

পুরস্কার ও সম্মাননা : ডাঃ আশরাফ সিদ্দিকী সাঈদা সিদ্দিকী ফাউন্ডেশন স্বর্ণপদক (২০০৫); নবকল্লোল সাহিত্য পদক (২০০৪); কবি জসীমউদদীন পরিষদ স্বর্ণপদক, ফরিদপুর (২০০৫); ইন্টারন্যাশনাল লিটারেসি মিট এ্যাপ্রিসিয়েশন এ্যাওয়ার্ড, পাটনা, ভারত (২০০৫); বাংলাদশে লেখিকাসংঘ পদক (২০২০) ; বাংলা সাহিত্য পদক (বাংলাদেশ কবিতা সংসদ ১৪১৩ বাংলা ); সৈয়দ ইসমাইল হোসেন সিরাজী পুরস্কার (সিরাজগঞ্জ);কবি সামসুল হক পুরস্কার কলকাতা (২০১৫ ডায়মন্ড হারবার ২৪ পরগণা, পশ্চিম বঙ্গ) ; জাতীয় সাহিত্য পরিষধ পদক ২০১২ (ঢাকা)। অপরাজিত কবিতা সম্মাননা (২০১৩ বগুরা)।

সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান : সভাপতি- নবকল্লোল সাহিত্য সংগঠন। জীবন সদস্য- বাংলা একাডেমী। জীবন সদস্য- নন্দিনী সাহিত্য ও পাঠচক্র। সহ সভাপতি- বাংলাদশে লেখিকা সংঘ। জাতীয় সাহিত্য পরিষদ– সদস্য; সচিব- নূরজাহান লুৎফর রহমান ফাউন্ডেশন

দেশ ভ্রমণ : যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত; হংকং; থাইল্যান্ড; সিঙ্গাপুর; মালয়েশিয়া; ভারত; কানাডা।