তবু আঁধারে দিয়েছি হাত

একদিকে আলো আর একদিকে আঁধার
মাঝখানে দাঁড়ানো আমি একা
জানিনা কোনদিকে বিজয়ের রেখা।

আঁধারে ডুবন্ত মানুষের কান্নার শব্দ
আলোতে পড়ে আছে সুখেরী গন্ধ
তবু, আঁধারে দিয়েছি হাত
বাঁচাতে কারোর জীবন
নিজের জীবন যাক নিভে যাক।
……………………………………………

পথিক চলেছে পথ

কাঁদে মন
ছিন্ন ভিন্ন হৃদয়
ক্ষত জীবন।
এলোমেলো ভবঘুরে
পথিক চলেছে পথ
কষ্টের তালে তালে বীণা বেজেছে
জানেনা কতদূরে রথ।
জানেনা পথিক
এই জীবন
কেন রেখেছে
কার জন্য হৃদয়ে ঘর বেঁধেছে।
অলস দুপুরে ক্লান্ত ছায়ায়
হেঁটে হেঁটে যায় পথিক কোন মায়ায়।
হাতের আঁচলে মুছে নেয় ভেজা ভেজা আঁখি
জানেনা সময় আর কতটুকু বাকি
শুধু জানে যতটুকু আছে সময় গুণা
হৃদয়ে থাকবে শুধু একজনা।
……………………………………………

আজ এক যুগ

এখনো মনে হয় তুমি আসবে
এখনো মনে হয় কথা রাখবে
আজ এক যুগ
হৃদয়ের পাতায় হাজারো শোক
এখনো মনে হয় সব শোক কেড়ে নিবে
এখনো মনে হয় তুমি আসবে।
প্রতিদিন আল্পনা দিয়ে সাজানো
নকশী কাঁথা দিয়ে রাঙ্গানো
আমার পৃথিবী
এখনো স্বপ্ন দেখে যায়
তুমি আসবে
তুমি আসবে
আমার জীবনের আঙ্গিনায়।
……………………………………………

দাগ

আঁধার ঘেরা জীবনে
যতটুকু সুখ ছিলো মনে
সব সুখ তোমায়
তোমায় দিয়ে দিলাম।
ছেঁড়া কাগজে মুড়ানো
রঙ্গিন সূতায় বাঁধানো
তোমার আঘাতের দাগ
আমি কেড়ে নিলাম।
ভেজা ভেজা চোখের পানিতে
মৃদু মৃদু কষ্টের হাসিতে
হেরে যাওয়ার গল্পে
আমি হেরে গেলাম।
……………………………………………

ইচ্ছে

ইচ্ছেরা ডানা মেলে উড়ছে
আকাশে- বাতাসে ঘুরছে
আজ মন সারাক্ষণ
এলোমেলো হাওয়ায় দুলছে।
কতো কতো স্বপ্ন
আজ দেবো পাড়ি
জীবনে যা ছিলো ভুল কিছু
দেবো সব আড়ি।
ইচ্ছের হাত ধরে চলেছি
চলেছি পথ
যাবো বহুদূর
নিয়ে যাবে রথ।
……………………………………………

বঙ্গবন্ধু তুমি আছো

আলোকিত করেছে পৃথিবী
করেছে বাংলা ধন্য
সারা পৃথিবী জানে
জানে বাংলা নয় নগণ্য।
দেশরত্ন শেখ হাসিনা
বঙ্গবন্ধু তোমার কন্যা
তোমার স্বপ্ন করেছে সফল
বাংলা আজ গৌরব উজ্জ্বল।
তবু কাঁদে বাংলা
তবু কাঁদে মানুষ
ভয়াবহ কালো রাত
তোমাদের আর্তনাদ
ক্ষমা করেনি হিংস্র মুখোশ।
কলঙ্কিত সেই কালরাত্রি
বহন করেছিলো যে যাত্রী
তারা আজ ইতিহাসের কালো অধ্যায়
নোংরা পাতায়।
বঙ্গবন্ধু তুমি আছো
তুমি আছো ভালোবাসায়
মানুষের মণিকোঠায়য়
ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ পাতায়।