সেই দিনগুলো

আমার সেদিন অনেক স্বপ্ন ছিল
ঐ চোখের দিকে চোখ ছিল,
মনের কাছে মন ছিল
হাতে ছিল হাত।

কানের কাছে ফিসফিসিয়ে কেটেছে কত রাত
বলেছি কতো কিছু না থাক।
এখনো চোখে স্বপ্ন আছে
মনের ভেতর জমেছে কিছু অভিমান।

আজ পিছুটান নেই
অনেক কথা ফুরিয়ে গেছে
মনের ভেতর ঘুণ ধরেছে
কঠিন আবরণে কোমলতা ঢেকে গেছে।

অনেক কথা ফুরিয়ে গেছে
অনেক স্বপ্ন হারিয়ে গেছে।
আছে অনুভূতিহীন হাত
আর আছে জেগে থাকা রাত।
……………………………………………

আনমনে

কাকে যেনো ফোন দিবো ভাবছি ক্ষণে ক্ষণে
মোবাইলটা তাই হাতের মুঠোয় নিচ্ছি আনমনে।
……………………………………………

একলা চলরে

অনেক তো বলা হলো
অনেক পথ চলাও হলো
এখন না হয় একটু থামি
নিজের কথা বলি
ইচ্ছের পথে চলি
আনন্দ নয় বুক ফুলিয়ে একটু চলি।
ইচ্ছে হলে হাসবো না হয়
বেহিসাবি চলবো যা হয়।

তুমি তো তুমিই রবে
নিজের খুশি চাপিয়ে দিবে।

ভাবিনা এখন ওসব
স্বপ্ন আমার, আমার আমিই সব,
আমিতো আমিই রব
নিজের পথে একলা যাবো।

নিন্দে মন্দ যা হয় হবে
আমার তাতে কি আসবে যাবে।
……………………………………………

কথা

অনেক কথা হয়েছে বলা,
এখন নেইতো কথার রেশ।
সময় এখন যাচ্ছে ভালো,
হয় না কথা তবু্ও আছি বেশ।
……………………………………………

জোছনার মায়া
(বন্ধুর জন্যে উৎসর্গ)

তুমি আমি আমি তুমি
শুধু দু’জন,
নিস্তব্ধ নিরবতা কেবল জোছনা যায় খেলে
ঘুম ঘুম চোখ তবু্ও জোছনা দেখি
দু’চোখ ভরে।
তুমি আমি শুধুই দু’জন।
ঝিঝি পোকার গান আর অল্প পাখির গুনঞ্জন।

আমার ঘরের বারান্দায় চাঁদ খেলা করে
বদ্ধ ঘরে জোছনা যেনো ঠিকরে এসে পরে।
দুজন তখন থাকবো বসে হাত ধরাধরি করি
জোছনার খেলায় মনটা দুলে ওঠে যেনো
……………………………………………

কবিতা

কবিতা আজ হারিয়ে গেছে অন্ধকারে মিলিয়ে গেছে
হাজার ঢাকেও আর শুনেনা,
ছন্দে আর শব্দর জাল বুনেনা।
অনুভূতিগুলো ভূতা হয়ে গেছে নিঃসংশতা দেখে।

শত চেষ্টা করেও অনূভুতি আর জাগ্রত হয়না
মানুষের ভয়াবহ রুপ দেখে,
কবিতার মৃত্যু হয়েছে
কোমল হৃদয়ের অভাব দেখে।

কবিতা আজ নির্বাক
সুন্দরের মাঝে হিংস্রতা দেখে,
কবিতা হারিয়ে গেছে,
মানুষে মানুষে বিভেদ দেখে।

কবিতা সেতো নির্লিপ্ত আজ
হৃদয়ের কঠিন বাঁকে,
ভুল মানুষ আজ স্বপ্ন দেখে,
কে এমন আছে যে রুখবে তাকে?

কবিতা আজ থমকে গেছে।
পথ হারিয়ে ফিরে গেছে
কোমল হৃদয় খুঁজছে তাঁকে।
কবিতা আজ হারিয়ে গেছে।
……………………………………………

ভাবুক মন

আমিও আসায় থাকি
তোমার ফিরে আসার পথের পানে তাকিয়ে থাকি।
এই বুঝি এলে তুমি
ক্ষণিক বাদে চোখ মেলি যেই,
নেইতো কেউ পথের মাঝে ।

কি যে ভাবি আজেবাজে
কেনো তাকাই পথের পানে সন্ধ্যা সাঝে?
ধুততরি ছাই ভাবছি মিছে
অপেক্ষা কেনো করছি?

আসলে আসুক যখন ইচ্ছে আসুক
অযথা কেনো হচ্ছি ভাবুক?
নিতান্তই এটা মনের অসুখ।
মনটাতো নয় হাতের মুয়া,
তাই যেথায় সেথায় যাচ্ছে খোওয়া।
……………………………………………

মন ময়ূর

স্বপ্নে থাক অনেক কাছে
চোখ মেললে বহু দূর
স্বপ্নে থাক স্বপ্ন হয়ে
মনের কোনে হয়ে ময়ূর
……………………………………………

পরিবর্তন

মানুষের জীবনে কেনো যে এতো ছন্দপতন হয় জানিনা।
কোনো সময় সঠিক সিদ্ধান্তকে ভুল মনে হয়,
আবার কখনো ভুল সিদ্ধান্তকে সঠিক মনে হয়।
ভালোলাগা মন্দলাগা মুহূর্তে মুহূর্তে পরিবর্তন হয়।
পছন্দ অপছন্দ ক্ষনে ক্ষনে চেঞ্জ হয়।
সুন্দর্য্য আর কুৎসিক ঘুরে ঘুরে ভালোমন্দে পরবর্তিত হতে থাকে।
আকর্ষণ আর বিকর্ষণ কিছু সময় বাদে বাদে তাদের রুপ পরিবর্তন করে।
কিযে অদ্ভুত এক মোহমায়া, আবার একে সৃষ্টির রহস্যও বলা যায়।

কিংবা প্রকৃতির নিয়ম হয়তো এমনই হয়।
……………………………………………

তুমি আছো তাই

তোমায় নিয়ে একটি সকাল তোমার জন্যে প্রতিটি রাত
তোমার জন্যে হাত বাড়িয়ে আছে দুটো হাত।
তুমি আছো বুকের ভেতর
হৃদয়ে আছো রাত্রি দিন।

তোমার মাঝে সুখের সাগর
তুমাতেই আছে সুখের নীড়,
তুমি আছো তাই স্বপ্নরা এসে চারপাশে করে ভীড়।

স্বপ্ন তুমি
সুখ তুমি
তুমি আমার ভাবনার রাত্রি দিন
তুমি আলো তোমাতেই দেখি সকল ভালো।