সৃজনানুবাদ: স্বপঞ্জয় চৌধুরী

ফেদরিকো গার্সিয়া লোরকা বিংশ শতাব্দির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্পেনীয় কবি ও নাট্যকার। গার্সিয়া লোরকা ১৮৯৮ সালের ৫ জুন গ্রানাডার থেকে কিছু মাইল অদূরে ফুয়েন্ট ভ্যাকুয়েরস নাম ছোট্ট একটি শহরে জন্মগ্রহণ করেন। গ্রানাডার চারদিকে বিস্তৃত ফার্টেল ভেগাতে তাঁর বাবার ছিল নিজস্ব খামার ও শহরের প্রাণকেন্দ্রে তাদের ছিল একটি আলিসান বাড়ি। মা ছিল তাঁর অনুপ্রেরণা, মায়ের হাতেই তার পিয়ানো হাতেখড়ি। মাধ্যমিক পড়াশোনা শেষ করে গার্সিয়া লোরকা ভর্তি হয় স্যাকরেড হার্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে, তাঁর নিয়মিত কোর্স বিষয় হিসেবে সে আইন বিষয়টিকে বেছে নেন। ১৯১৭ সালে তিনি শিল্পকলার ক্লাসে অংশগ্রহণের জন্য ক্যাসেলে ভ্রমণ করেন, যার বিচিত্র অভিজ্ঞতার অনুপ্রেরণায় তিনি ১৯১৯ সালে তাঁর প্রথম বই Impresionesy Viajes প্রকাশিত হয়।

১৯১৯ সালে গার্সিয়া লোরকা মাদ্রিদ ভ্রমণ করেন এবং সেখানেই তিনি ১৫ বছর থেকে যান। বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়ার পর তিনি শিল্পকলা ও সাহিত্য চর্চায় মনোনিবেশ করেন। সে থিয়েটার নাটক পরিচালনা করত , জনসম্মুখে স্বরচিত কবিতা পড়তো এবং পুরোনো লোকগীতি সংগ্রহ করত। মাদ্রিদ থাকাকালীন সময়ে ১৯২০ সালে তিনি লিখেন El Maleficio de la mariposa নামক বইটি, এটি ছিল একটি নাটকের বই। যা প্রকাশ পরপরই সে বই নিয়ে অনেক কেলেঙ্কারি সৃষ্টি হয়। ১৯২১ সালে তিনি লিখেন Libro de poemas বইটির মূল প্রাতিপাদ্য বিষয় ছিল স্পেনের লোকগাঁথা। লোরকার অধিকাংশ সৃষ্টিকর্মই লেখা হয়েছে জনপ্রিয় কিছু বিষয় দিয়ে যেমন- যাযাবর সাধু ও ধর্মীয় গুরুদের নিয়ে। ১৯২২ সালে লোরকা স্পেনে “গভীর ভাবের সঙ্গীত” এর উপর “ক্যান্টি জোন্ডো” নামক একটি ফেস্টিভালের আয়োজন করেন, যেখানে বিশ্বখ্যাত সঙ্গীত শিল্পি ও গিটার বাদকেরা অংশগ্রহণ করেন। সঙ্গীতগুলো মূলত তাঁর ১৯২০ সালে লিখিত কবিতারই রুপান্তর মাত্র। সেসময় তিনি জেনেরাসিওন ডেল ২৭ নামক এক সঙ্গীত দলের শিল্পি হিসেবে পরিচিতি পান, যে দলটি স্যালভেদর ডালি এবং লুইস বিউনুয়েল এর সাথে জড়িত ছিল, যারা কিনা তরুণ কবিদের প্রকাশ করতো তাদের অধিবাস্তববাদ ভাবের মাধ্যমে। ১৯২৮সালে প্রকাশিত হয় তার গীতিকবিতার বই Romancero Gitano (“The Gypsy Ballads”), এ বইট তাকে খ্যাতির উচ্চ শিখরে নিয়ে যায়, তার জীবদ্দশাতেই বইটি সাতবার পুনঃমুদ্রিত হয়েছে।

১৯২৯ সালে গার্সিয়া লোকরা নিউইয়োর্কে আসেন। কবির প্রিয় নৈকট্য ছিল হারলেম, সে ভালোবাসতো আফ্রিকান-আমেরিকানদের আধ্যাত্মিকতা, যা তাকে তার “গভীর ভাবের সঙ্গীতের” কথাই মনে করিয়ে দেয়। ১৯৩০ সালে লোরকা স্পেনে ফিরে আসলেন।১৯৩১ সালের নভেম্বর মাসে স্প্যানিশ রিপাবলিকানরা ফেডারেল দ্বিতীয় সাধারণ কংগ্রেস সভায় স্পেনীয় ছাত্রদের সমর্থনে ক্ষমতা গ্রহণ করলেন। কংগ্রেস মাদ্রিদের প্রাণকেন্দ্রে “বারাক্কা” নামক একটি নাট্যমঞ্চ নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিলেন যেখানে সাধারণ জনগণের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নাটকসমূহ প্রদর্শিত হবে। “লা বারাক্কা” একটি ভ্রাম্যমাণ নাট্যমঞ্চ কোম্পানি যারা স্পেনের বিভিন্ন শহর, গ্রাম, বন্দরের জনবহুল জায়গাগুলোতে স্প্যানিশ ক্লাসিক নাটকগুলো প্রদর্শিত করে থাকেতা। তন্মধ্যে লোরকার নিজস্ব কিছু নাটক ছিল, বিশেষ করে তাঁর বিখ্যাত তিনটি ট্রাজেডি(বিয়োগান্তক নাটক) Bodas de sangre (1933), Yerma (1934), and La Casa de Bernarda Alba (1936), তৈরি করেছিল কোম্পানিটি।

১৯৩৬ সালের গৃহযুদ্ধ বিরতির সময় লোরকা তার নিজের বাড়ি ক্যালজোনস ডি গার্সিয়ায় কিছুদিন থেকেছিলেন। সে বছরই ১৯ আগস্ট তিনি ফ্র্যাঙ্কুইস্ট সৈন্যদের হাতে গ্রেফতার হন, কিছুদিন জেলে থাকা পর সৈন্যরা তাকে তার শ্যালক ম্যানুয়েল ফেরান্ডেজ মেনাটেসিনস (যিনি ছিলেন গ্রানাডার সাবেক সমাজতান্ত্রিক মেয়র) সাথে দেখা করান, যাকে সৈন্যরা রাস্তায় টেনে হিচরে অমানবিক নির্যাতন করে হত্যা করে। তারপর লোরকাকে তার সমাধিক্ষেত্র পরিদর্শন করার পর, সৈন্যরা লোরকাকে জোরপূর্বক গাড়ি থেকে নামান বন্দুকের বাট দিয়ে আঘাতের পর আঘাত করেন, বুলেট দিয়ে ঝাঝড়া করে দেন তার শরীর। গ্রানাডার প্লাজা ডেল কারমেনের সামনে তার সমস্ত বই পুড়িযে ফেলা হয় এবং অতি শীঘ্রই তার সমস্ত বই নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। সেই থেকে আজ অবদি কেউ জানে না এই কালজয়ী মেধাবি কবি কোথায় শায়িত আছেন।

এক নজরে লোরকার প্রকাশিত বই সমূহ: Poetry : In Search of Duende (1998); Selected Poems (1941); Canciones (1927); Poeta en Nueva York (“Poet in New York”) (1940); Lament for the Death of a Bullfighter and Other Poems (1937); Llanto por Ignacio Sanchez; Mejias (1935); El poema del Cante Jondo (1932); Romancero Gitano (“The Gypsy Ballads”) (1928); Libro de poemas (1921); Impresiones y viajes (1918). Drama: The Comedies (1955); La casa de Bernarda Alba (“The House of Bernarda Alba”) (1936); Yerma (1934); Bodas de sangre (“Blood Wedding”) (1933); Amor de Don Perlimplin con Belisa en su jardin (1931); La zapateraprodigiosa (“The Shoemaker’s Marvelous Wife”) (1930); Mariana Pineda (1927); El malificio de la mariposa (1920)

তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট, উইকিপিডিয়া

প্রভাত

নিউইয়োর্কের প্রথম প্রভাতে
চৌরাস্তায় জড়ো হয়
কতগুলো কালো কবুতরের জাঁক
তারা কাদা আর নর্দমার জল নিয়ে খেলা করে।

নিউইয়োর্কের প্রথম প্রভাতে
গর্জন করে প্রকান্ড গতিতে বেরিয়ে আসে গোলা
আর এখানে অসহ্য যন্ত্রণা নিয়ে দেবদূতের সন্ধান চলে
কি এক পেরেক ঠোকা যন্ত্রনায় বাধ্য করে চালানো হয় সন্ধান কার্য।

প্রভাত এগিয়ে যায় কেউ মুখে কিছু তোলেনা
কারণ আলো এবং আশা এখানে অসম্ভব প্রায়।
মাঝে মাঝে কিছু অগ্নিশর্মা মুদ্রা জোটে তাদের
তুরপুন দিয়ে হৃদয় খনন, গোগ্রাসে গিলা আর সন্তান পরিত্যাগের জন্য।

যারা খুব প্রত্যুষে বের হয় তাদের হাড়ে
দেয়নিতো কেউ স্বর্গীয় ছোঁয়া অথবা ফুটন্ত ভালোবাসা এবং মৃত্যু
তারা জানে তারা কয়েকটি সংখ্যা মাত্র, যারা কেবলি সুবিধাবঞ্চিত নর্দমা-কাদা
নিয়তির এই নির্বোধ খেলায় তারা কেবলি নিষ্ফল শ্রমিক।

এখানে তাদের জন্য গচ্ছিত আলো শিকলে বন্দি এবং কন্টকময়,
তারা বিজ্ঞানের নির্লজ্জ অমূলক প্রতিযোগিতার কাছে নত-পরাজিত
আর কবুতরের দলেরা বিনিদ্র চোখে টালমাটাল হয়ে বিছোয় কল্পনার আঁচল
যদিবা তারা পালাতে পারে এই খুন আর ধ্বংসের নগরী ছেড়ে।

Dawn

Dawn in New York has
four columns of mire
and a hurricane of black pigeons
splashing in the putrid waters.

Dawn in New York groans
on enormous fire escapes
searching between the angles
for spikenards of drafted anguish.

Dawn arrives and no one receives it in his mouth
because morning and hope are impossible there:
sometimes the furious swarming coins
penetrate like drills and devour abandoned children.

Those who go out early know in their bones
there will be no paradise or loves that bloom and die:
they know they will be mired in numbers and laws,
in mindless games, in fruitless labors

The light is buried under chains and noises
in the impudent challenge of rootless science.
And crowds stagger sleeplessly through the boroughs
as if they had just escaped a shipwreck of blood.

মৃত শিশুদের শোকগাঁথা

প্রতিটি বিকেল বেলায় গ্রানাডাতে
প্রতিটি বিকেলে একটি শিশু ঝরে পড়ে
প্রতিটি বিকেলে জলেরা নিচে গড়িয়ে পড়ে
এবং মৃত্যুর সাথে আলিঙ্গন করে।

যেনবা শ্যাওলার পাখনা জড়িয়ে আছে মৃত্যু
মেঘাচ্ছন্ন বায়ু এবং মৃদুমন্দ বায়ু
যেন দুটি রঙিন পাখি হয়ে উড়ে যাচ্ছে উঁচু মিনারটির উপর দিয়ে
আজকের এ দিন শোকার্ত বালকের দিন।

কোন ছোট পাখির গানে কম্পিত ছিলনা বায়ু
তখন তোমার সাথে করেছিলাম দেখা মদমগ্নতার গুহায়
কোন মেঘের টুকরো যায়নিকো ছুঁয়ে দূরের উচ্চভূমি
যখন আমি নিমগ্ন ছিলাম নদীতে।

অসুরের মতো জলের ধারা বইছে পাহাড় থেকে
এবং উপতক্যা থেকে গড়াগড়ি দিয়ে নামছিল কয়েকটি পদ্ম এবং কুকুরের দল
আমার হাতের বেগুনি ছায়া আর তোমার শরীর
তারই পরে মরে পড়ে আছে যেন এক হিমহীন দেবদূত হয়ে।

Gacela Of The Dead Child

Each afternoon in Granada,
each afternoon, a child dies.
Each afternoon the water sits down
and chats with its companions.

The dead wear mossy wings.
The cloudy wind and the clear wind
are two pheasants in flight through the towers,
and the day is a wounded boy.

Not a flicker of lark was left in the air
when I met you in the caverns of wine.
Not the crumb of a cloud was left in the ground
when you were drowned in the river.

A giant of water fell down over the hills,
and the valley was tumbling with lilies and dogs.
In my hands’ violet shadow, your body,
dead on the bank, was an angel of coldness