জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানকে নিয়ে সাম্প্রতিক কালে প্রকাশিত বইগুলোর মধ্যে ষোল ফর্মায় বাঁধিত ২৫৬ পৃষ্ঠার বইটি অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন প্রচ্ছদে মুদ্রিত একটি দূর্লভ তথ্য ও প্রামাণিক গ্রন্থ। ‘মহানায়কের মহানর্কীতি’ নামকরণেও সম্পাদক এম ইব্রাহীম মিজি উঁচু বাঙালি মুন্সিয়ানার পরিচয় দিয়েছেন। প্রবন্ধ-নিবন্ধ, গল্প, কবিতা-ছড়া নানান বিষয় বৈচিত্র্যে বঙ্গবন্ধুর জীবনকর্ম এখানে শিল্পিতরূপে প্রকাশ পেয়েছে। প্রতিটি বিভাগে লেখক কবিবৃন্দ সযত্ন মননশীলতা আর দায়িত্ববোধের বন্ধনে আবদ্ধ থেকেছেন। প্রবন্ধ-নিবন্ধ বিভাগে বিশিষ্ট কবি প্রাবন্ধিক তপন বাগচীর ‘বাংলাদেশের যাত্রাগানে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু’ একটি বলিষ্ট সংযোজন। কারণ এ নিবন্ধে তিনি অধিকতর তথ্য উপাত্ত সন্নিবেশ করে রচনাটিকে পাঠকের কাছে বিশ্বাসযোগ্য ও সুখপাঠ্য করে তুলেছেন অবলীলায়।

অন্যান্য বিভাগের মধ্যে কবিতায় খ্যাতিমান কলামিষ্ট কবি আনিসুল হক তাঁর ‘৩২ নম্বর মেঘের ওপারে’ বস্তুনিষ্ট কবিতায় অসাধারণ নিপূণ দক্ষতায় বঙ্গবন্ধুর বাড়ি ঘিরে বাঙালির ঐশ্বর্য্যরে ধূসর ক্যানভাস এঁকেছেন। গল্পে রফিকুর রশীদ-এর ‘সমান্তরাল রেখা’ আগস্ট ট্যাজেডির এক শোকাবহ আবহ সৃষ্টি করেছে এবং আনোয়ার রশীদ সাগরের ‘খোকার বেড়ে ওঠা’, বঙ্গবন্ধুর শৈশবের সুখময় চিত্র অঙ্কিত হয়েছে, ছড়ায় ফকির ইলিয়াসের ‘মৃত্তিকার মহাজীবন’ অনবদ্য পাঠ লুফে নেবার মতো। পঞ্চম অধ্যায়টি এ গ্রন্থের একটি গুরুত্বপূর্ণ সংযোজন। যা ইতিহাস অনুসন্ধানী পাঠকের জ্ঞানের তৃষ্ণা মিটাবে। গ্রন্থটিতে মোট ১৩১ লেখকের লেখা স্থান পেয়েছে। এখানে প্রবীণদের পাশাপাশি কিছু নবীন লেখকের লেখাও সম্পাদক প্রকাশ করেছেন।

বইটি পরিমার্জনে লেখকের আন্তরিকতার ছাপ রয়েছে। তবে লেখক আরেকটু যত্ববান হলে অল্পসল্প ভুলভ্রান্তিগুলো এড়ানো যেত। দ্বিতীয় এবং চতুর্থ অধ্যায় মূলত: একই বিষয় তথাপি সেটি আলাদা কেন হলো-বিষয়টি স্পষ্ট নয়। আগামী সংস্করণে লেখক আরো যত্ববান হবেন এ প্রত্যাশায় বইটির সফলতা কামনা করছি।

সম্পাদক : এম ইব্রাহীম মিজি, প্রকাশকাল : সেপ্টেম্বর ২০১৯, মূল্য : পাঁচশত টাকা মাত্র, প্রকাশক : আশালতা প্রকাশনী, কালামপুর, ধামরাই, ঢাকা-১৩৫১।