রমজানের চাঁদ উঠেছে

রমজানের ঐ বাঁকা চাঁদ উঠল ফের আকাশে
স্বস্তির এই মন পাখি মেলল ফের পাকাসে l
আমির গরিব সবাই তাঁরা এক কাতারে থাকবে
ক্ষুত পিপাসার দহন জ্বালা সবাই বুকে রাখবে l
ক্ষুদার জ্বালা বুঝবে আমির গরিব তখন স্বজন হবে
এই দুনিয়ার মিলন মেলা দরাজ আর বড়ো হবে l
এই দহনে পুড়বে পাপ মনটা তখন শুদ্ধ হবে
শয়তানের সব লালসার দরজা রুদ্ধ হবে l
রমজানের ঐ বাঁকা চাঁদ উঠল ফের আকাশে
স্বস্তির এই মন পাখি মেলল ফের পাকাসে l
…………………………………………..

রমজানে তুই পাপ পুড়াবি

রমজানে তুই পাপ পুড়াবি মন জুড়াবি আয় ছুটে
খোদার রহম ঝর্ণা হল বুক পেতে তুই নে লুটে l
এই আকাশের সব দরজা তোর জন্য যায় খুলে
মনের বাগান গোলাপ হল ভরে যায় তা ফুলে ফুলে l
এই মানুষকে স্বজন ভেবে কতজনকে বুকে টানিস
দেখছে বিধি বিধান ভুলে তুই একদিন মরবি জানিস l
তাহলে তুই বুকে টেনেই স্বজন ভেবে আদর কর
পাইনা কাপড় যে মানুষটা তার সামনে চাদর ধর l
রমজানে তুই পাপ পুড়াবি মন জুড়াবি আয় ছুটে
খোদার রহম ঝর্ণা হল বুক পেতে তুই নে লুটে l
…………………………………………..

কিস্তির মত উঠল চাঁদ

কিস্তির মত আকাশে উঠলো চাঁদ এক ফালি
ভিস্তির মত জীবন পিপাসা মিটাই দে তালি l
হিরোগ দ্যুতি আলো ঝিলমিল মিছিল হাঁটে
রহমতের ঝরছে ঝর্ণা আকাশের ঐ খোলা কপাটে l
আয় তোরা মিলবি মিলাবি জীবনটাকে
আবাবিল এখন আলোর পাখী উড়ছে ঐ ঝাঁকেঝাঁকে l
জীবন এখন মগ্ন প্রহর ক্ষনে ক্ষনে হয় উতলা
কন্ঠে কবির অনেক শব্দ এখন না কথা বলা l
কিস্তির মত আকাশে উঠলো চাঁদ এক ফালি
ভিস্তির মত জীবন পিপাসা মিটাই দে তালি l
…………………………………………..

রমজানের ঐ বাঁকা চাদ

রমজানের ঐ বাঁকা চাদ আঁকা ছবি আকাশ পটে
এই পৃথিবীর ক্লিন্ন তিমির দেখ তাতে পিছু হটে l
আধার তবে পলাতক এখন বাঁধার পথ কোথায় হারায়
দেখ মানুষ মুক্ত এখন ভাঙলো কপাট পাষান কারায় l
রমজানের ঐ বাঁকা চাদ আঁকা ছবি আকাশ পটে
এই পৃথিবীর ক্লিন্ন তিমির দেখ তাতে পিছু হটে l
…………………………………………..

রমজানরে তুই কমজানের বাড়ালি বৈভব

রমজানরে তুই কমজানের বাড়ালি বৈভব
বার্ধক্য মুছে এলো ফের হারানো শৈশব l
বোঝেনা সে বন্ধুর পথ বোঝেনা সে খানা খন্দ
বুকে করে নেয় সে সব ভালোকে পায়ে দলে সে সব মন্দ l
ছুটতে থাকে ফুটতে থাকে গোলাপ ফুল শত শত
হাসনু হেনাও কখনও হয় ফুটতে থাকে অবিরত l
আকাশ তার হাতের মুঠোয় ,হাতের মুঠোয় লক্ষ তারা
দুনিয়াকে সে পায়ে রেখে হাটতে থাকে আত্মহারা l
রমজানরে তুই কমজানের বাড়ালি বৈভব
বার্ধক্য মুছে এলো ফের হারানো শৈশব l
…………………………………………..

রমজানরে তুই পাগল করলি

রমজানরে তুই পাগল করলি আগল খুলে দিলি কবির
দিন হল তার ছন্দ মুখর দিন হল তার নতুন রবির l
বঞ্চনা হয় গোলাপ জুঁই লাঞ্ছনা হয় হাস্নুহেনা
কবিকে দিলি অজানা দেশ অলৌকিক চির অচেনা l
কবি থাকেন মনের সুখে ,মুখে নিয়ে লক্ষ স্বর
চারিদিকে কবিতা শুধু,কবিতা হল উঠোন ঘর l
দ্যাখ কবি আয়েস করে ,লিখতে থাকেন খাতার পাতায়
লেখার পোকা কিলবিল করে ,এই কবির মাথায় l
পাগল হয়ে হাটতে থাকেন ,ওপথ চির অচেনা
কবির পথ লক্ষ তারায়, আত্মহারায় মুছে বেদনা l
রমজানরে তুই পাগল করলি আগল খুলে দিলি কবির
দিন হল তার ছন্দ মুখর দিন হল তার নতুন রবির l
…………………………………………..

রমজানরে তুই …

সারা বছর যার নিত্তই থাকে ,জঠর জ্বালা
রমজানরে তুই তাকেই দিলি লক্ষ তারার আলোর মালা l
ঘর উঠন তার হয়েই থাকে, আলো তারার হাট বাজার
সর্বহারা তাকে দিলি ,দ্বিগ্বিজয়ী মহিমা রাজার l
যে ছিল শুধু ছিন্ন মানুষ ,চোখে মুখে তার কান্না
আজকে সে সফল মানুষ, চোখে তার হিরেপান্না l
আকাশ তারা তার কদমে ,দ্যাখ রোজ চুমু খায়
পরম পাওয়ায় ভরেছে বুক ,প্রিয় পাওয়ার পসরায় l
সারা বছর যার নিত্তই থাকে ,জঠর জ্বালা
রমজানরে তুই তাকেই দিলি লক্ষ তারার আলোর মালা l
…………………………………………..

রমজানরে তুই ফুল ফুটালি

রমজানরে তুই ফুল ফুটালি ভুল টুটালি হাজার লক্ষ
হৃদয় আমার হয় উতালা থরথর কাঁপছে বক্ষ l
মনের জমিন হয় প্রশস্ত ,বিরান জমি কুসুম বাগ
ভুলেগেছি ক্লিন্ন তিমির আলোয় ছোঁয়া এই অনুরাগ l
ভুলেগেছি রাগ ঘৃর্ণা ভুলেগেছি লোভ কাম
তারার হরফ দিয়ে আমি লিখে চলেছি নিজের নাম l
আসছে মানুষ যাচ্ছে মানুষ বুকে বুক মিলিয়ে হাঁটি
দ্যাখ জীবন সফেদ হল দ্যাখ হল পরিপাটি l
রমজানরে তুই ফুল ফুটালি ভুল টুটালি হাজার লক্ষ
হৃদয় আমার হয় উতালা থরথর কাঁপছে বক্ষ l
…………………………………………..

রমজানরে তুই মায়ের মত…

রমজানরে তুই মায়ের মত আমায় বুকে আগলে নিলি
তোর দরাজ বুক দিলি , তোর নরম কোল দিলি l
আষ্টেপৃষ্টে তাইতো আমি তোকেই জড়িয়ে থাকি
আমার প্রভু হাতছানি দেয় আমি তাকে ডাকি l
রমজানরে তুই ক্ষুদ পিপাসায় মাথায় দিলি হাত
আমার জন্য বয়ে আনিস সোনালী সওগাত l
আমি এখন পাগল হয়ে দিগ্বিদিকে ছুটি
ইস্তেহার ছড়িয়ে দিয়ে ফুলের মত ফুটি l
মানুষের মুক্তি পত্র দ্যাখ আমার হাতে
তাইতো মন খুশিতে পাগল হয়ে মাতে l
রমজানরে তুই মায়ের মত আমায় বুকে আগলে নিলি
তোর দরাজ বুক দিলি , তোর নরম কোল দিলি l
…………………………………………..

রমজানরে তুই…

রমজানরে তুই আমায় এখন ভুক পিপাসার সময় দিলি
তবুও আমার অশেষ সুখ অনেক আসুখ কেড়ে নিলি l
আমি এখন মগ্ন যুবক বৃদ্ধ নই হাঁটতে পারি
সামনে ঐ বাঁধার পাহাড় দু হাত দিয়ে কাটতে পারি l
দ্যাখ আমি কাজ করছি লাজ ভুলেছি সব কিছু
যেখানে ওই জীবনের হাট পৌঁছি আমি নই পিছু l
দুঃখ জ্বালা উধাও হলো সুখ পিয়ালা সামনে আসে
মন পাখিটা উড়াল দিল দ্যাখ ওই আকাশে ভাসে l
রমজানরে তুই আমায় এখন ভুক পিপাসার সময় দিলি
তবুও আমার অশেষ সুখ অনেক আসুখ কেড়ে নিলি l