রেদুমিক-২১
কিযে আছে দেশটার ভাগ্যে
সবকিছু চড়া দাম
বেদনার ঝরা ঘাম
জনগণ খোরা হাতে মাগগে।

কিযে আছে দেশটার ভাগ্যে
সরকার তবু বলে আজ্ঞে!

রেদুমিক-২২
হাহাকার হাহাকার হাহাকার
হাহাকার গড়িয়ে
যায় শুধু ছড়িয়ে
নেই আজ মমতার মা হাঁকার!

হাহাকার হাহাকার হাহাকার
বুক ফাটে মুখ ফাটে আহা কার?

রেদুমিক-২৩
কই আজ মানুষেরা – কই রে?
দেখি আজ পশু সব
অসুরের অসু সব
খুঁজে খুঁজে হয়রান হই রে !

কই আজ মানুষেরা – কই রে?
বেদনায় করে থৈ থৈ রে।

রেদুমিক-২৪
চাল চুরি ডাল চুরি মাল চুরি কতো
দেখি আজ দুই চোখে
গেলো নাকি সুঁই চোখে?
হায় হায় এ হৃদয় ক্ষত-বিক্ষত।

চাল চুরি ডাল চুরি মাল চুরি কতো
মানুষ হয়না কেনো মানুষের মতো?

রেদুমিক-২৫
আমি চাই ঘোর কেটে ভোর হোক আরো
কুৎসিত কদাকার
মুছে সব বদাকার
পথে পথে জীবনের শোর হোক আরো।

আমি চাই ঘোর কেটে ভোর হোক আরো
আলোকিত পুলকিত দোর হোক আরো।

রেদুমিক-২৬
সাহসের পতাকাটা ওড়াও দেখি
হাতে নিয়ে তরবারি
হতাশার ঘর-বাড়ি
কেটে কেটে আলোমুখ ঘোরাও দেখি।

সাহসের পতাকাটা ওড়াও দেখি
বেদনার ধারাপাত পোড়াও দেখি।

রেদুমিক-২৭
ভয় ভয় করে তুমি যতো কাঁপবে
ভয় ততো কাছে এসে
তোমাকেই ভালোবেসে
আরো বেশি দরমুজ বুকে চাপবে!

ভয় ভয় করে তুমি যতো কাঁপবে
মৃত্যুর সীমানাটা ততো মাপবে।

রেদুমিক-২৮
গুণাগুণ বোঝো আগে বস্তুর
তারপর কলহে
হেসে হেসে বলো হে
মানি না কিছুই আর দস্তুর।

গুণাগুণ বোঝো আগে বস্তুর
এই হলো সময়ের কস্তুর।

রেদুমিক-২৯
তোমরাই হয়ে যাবে হেয়
আমাদের দোষ ধরে
অযথাই ফোঁস করে
হয়ে যাবে অদ্ভুত গেঁয়।

তোমরাই হয়ে যাবে হেয়
অগাদের মগাদের পেয়।

রেদুমিক-৩০
আসে যদি ঝড় আরো আসুক তবে
জানি না থামতে আর
কখনো ঘামতে আর
ভেঙে গিয়ে ঘর আরো ভাসুক তবে।

আসে যদি ঝড় আরো আসুক তবে
আমাদের এ হৃদয় হাসুক তবে।