শিল্পী নাজনীন Shilpi Naznin কবি, কথ্যাসাহিত্যিক ও শিশুসাহিত্যিক। ১৯৮১ সালের ১৪ জুলাই কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী থানায় জন্মগ্রহণ করেন। বাবা খন্দকার আবু ইউসুফ ও মা রোকেয়া খাতুন টুনু। নয় ভাই-বোনের মধ্যে তিনি অষ্টম । স্কুল এবং কলেজ জীবন কুষ্টিয়াতেই অতিবাহিত করেন। এরপর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে অনার্স এবং মাস্টার্স শেষে কলেজে শিক্ষকতার শুরু।
শিল্পী নাজনীন-এর স্বামী আব্দুল্লাহ আল মামুন, ছেলে তাহসীন আদীব অয়ন ও তাহসীন অনন্য অহনকে নিয়ে ঢাকার সাভারে বসবাস করছেন।

লেখালেখিতে হাতেখড়ি খুব ছোটবেলাতেই। বড়ভাই লিখতেন, অনুপ্রেরণার বড় অনুসঙ্গ ছিলেন তিনি। তাছাড়া ক্লাস থ্রিতে পড়াকালীন মায়ের আকস্মিক মৃত্যু মনের ওপর প্রভাব ফেলেছিল ভীষণ। স্বপ্নঘুড়ির নাটাইটা হাতফস্কে সেই যে উড়াল দিয়েছিল, নাগাল মেলেনি আর। শৈশব, কৈশোর কেটেছে অবহেলা, অনাদর, একাকিত্ব আর বিষণ্নতায়। সেই বয়সে সেসব কাটাতেই আঁকড়ে ধরেছিলেন বই। একমাত্র বন্ধু ছিল বই। গোর্কির ছেলেবেলা পড়ে প্রেমে পড়েছিলেন তাঁর লেখার, স্কুল বয়সেই। কোথায় যেন একটা মিল ছিল গোর্কির ছেলেবেলার সাথে নিজের। লেখক হওয়ার স্বপ্নটা মনের ভেতর পেখম মেলেছিল তখন থেকেই। স্থানীয় পত্রিকা, ম্যাগাজিনে ছাপাও হতো দু চারটে গল্প-কবিতা। বর্তমানে লেখায় মনোযোগী হয়েছেন আরো।

বিশেষ কোনো বাণী বা আদর্শ প্রচারে নয়, আনন্দের জন্য লেখেন। এ পর্যন্ত প্রকাশিত বই চারটি। প্রথম বই ‘ছিন্নডানার ফড়িঙ’ উপন্যাসটি প্রকাশিত হয় ২০১৬তে, দাঁড়কাক প্রকাশনী থেকে। দ্বিতীয় ‘আদম গন্দম ও অন্যান্য’ নামক গল্পের বইটি প্রকাশিত হয় ২০১৭ সালে, ছিন্নপত্র প্রকাশনী থেকে। তৃতীয় গল্পের বই ‘বিভ্রম’ ২০১৮ সালে প্রকাশিত হয় আদিত্য অনীক প্রকাশনী। ২০১৮তে প্রকাশিত চতুর্থ ‘তোতন ও ফড়িঙরাজা’ বইটি শিশুতোষ গল্পের। এটিও প্রকাশ করেছে আদিত্য অনীক প্রকাশনী।

এছাড়া শিক্ষকতা ও লেখালেখির পাশাপাশি সম্প্রতি ‘গগন হরকরা’ নামে একটি ওয়েবজিন পরিচালনা ও সম্পাদনা করছেন। জড়িত আছেন ‘কথা’ নামক একটি সাহিত্য সাময়িকীর সঙ্গেও।

শিল্পী নাজনীনের রক্তের গ্রুপ: বি-পজিটিভ। ই-মেইল : 81naznin@gmail.com ফেসবুক : শিল্পী নাজনীন।