মন পবনের নাও : ছিপ-খান তিন দাঁড়

নৌকা, কোষা, ভাওয়ালী। ছিপ, ডিঙ্গি, জেলে ডিঙ্গি। পটল, পানসী, ঘাষী। গেরদারী, কুমারিয়া, পানুয়া। গয়না, নাওধুরী, ডোঙ্গা। খেলনা আর সাম্পান।

তিনশ’ মাল্লার বিরাট পাল তোলা জাহাজে হাল ধরতো যে দুরুন্ত নাবিক- সে এখন পিঠ বাঁকা করে গুণ টানতে শুরু করলো কাশবনের ধার ঘেঁষে।

আমাদের সাহিত্যে গুয়ারেখীর কথা আর থাকলো না। আমাদের সিন্দাবাদ নাবিক, আমীর সওদাগর আর নছর মালুম হলেন ডিঙ্গি নৌকার মাঝি।
ছিপ খান তিন দাঁড়
তিন জন মাল্লা
চৌপর দিন ভর
দেয় দূর পাল্লা।

আমাদের নৌ শিল্পের পরিণতি হলো এই!